গুগল ফায়ারবেজ এডমব অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপে ইন্ট্রিগ্রেট করা।

গুগলের অ্যাডমব SDK আলাদা ভাবে থাকলেও এখন তা ফায়ারবেজ এর সাথে ইন্ট্রিগ্রেটেড। তাই এখন আর আগের মত অ্যাডমব ব্যবহার করা যাবে না। এছাড়া Admob SDK 6.4.1 এবং এর আগের ভার্সন গুলো সেপ্টেম্বর থেকে ডেপ্রিকেট করে দিবে। গুগল রিকমেন্ড করে Admob SDK 7 অথবা তার উপরের ভার্সন গুলো ব্যবহার করতে। এখন লেটেস্ট ভার্সন হচ্ছে 9.2.1 আর […]

Read More

অ্যান্ড্রয়েড রিসাইকেল ভিউ 

Recycler ভিউ হচ্ছে একটা উইজেট, যেটা লিস্ট আকারে ডেটা দেখায়। নাম থেকেই বুঝা যাচ্ছে এটির কাজ কি। ডেটা দেখানোর জন্য সব গুলো ডেটা না লোড করে যতটুকু দেখানো দরকার, ততটুকু লোড করে। আর তাই এটা মেমরি ইফিশিয়েন্ট। আমরা একটি প্রজেক্ট তৈরি করে নিব। এটি কিছুটা অ্যান্ড্রয়েড লিস্ট ভিউ – Android ListView এর মত। আমরা একটি […]

Read More

অ্যান্ড্রয়েড জাভা কোড থেকে ডাইনামিক ভিউ যুক্ত করা

অ্যান্ড্রয়েডে আমরা সাধারণত XML থেকে ভিউ এড করি। এখন দেখব কিভাবে জাভা কোড থেকে ভিউ যুক্ত করা যায়। প্রথমে একটা প্রজেক্ট খুলে নিব অ্যান্ড্রয়েড স্টুডিওতে।ভিউ এড করার জন্য আমাদের একটা প্যারেন্ট ভিউ লাগবে। activity_main.xml এ একটা বাটন যুক্ত করব। আর MainActivity.java যুক্ত করব OnClickListener. এর পর বাটনের OnClickListener এ আমরা ডাইন্যামিক্যালই ভিউ যুক্ত করার কোড […]

Read More

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপে SQLite ডেটাবেজ ব্যবহার

অ্যান্ড্রয়েডে ডেটা পারসিস্টেন্সির জন্য আমরা সাধারণত SharedPreferences ব্যবহার করি। কিন্তু বেশি ডেটা বা কমপ্লেক্স ডেটা হলে পারসিস্টেন্সির জন্য SharedPreferences ভালো একটা অপশন নয়। তখন আমরা ফাইল স্টোরেজ বা ডেটাবেজ ব্যবহার করতে হয়। SQLite হচ্ছে ওপেন সোর্স ডেটাবেজ সিস্টেম, যেটা অ্যান্ড্রয়েডে বিল্টইন থাকে। এটি অফলাইন ডেটাবেজ। আর এটি ডিভাইসে একটা ফাইল হিসেবে স্টোর থাকে। ডেটাবেজের প্রধান […]

Read More

মোবাইল অ্যাপ তৈরি করতে কি কি শিখতে হয়?

মোবাইল অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট শিখতে গেলে অনেক অনেক কিছুই রয়েছে শেখার মত, সব কিছু শিখতে গেলে সারাজীবন শেখার পেছনেই ব্যয় করতে হবে। কোন কাজ করা হয়ে উঠবে না। অ্যান্ড্রয়েড নিয়েই বলি। যেমন লেআউট, ফ্র্যাগমেন্ট, নেটওয়ার্ক, নটিফিকেশন, সার্ভিস, লোকেশন, ম্যাপ, ডেটাবেজ, ইমেজ, রেস্ট সহ আরো কত কিছু। তাই বলে সব কিছু শিখবেন? একটা প্রজেক্টে সব কিছু লাগে […]

Read More

ওয়েব ডিজাইনিং এবং ওয়েব ডেভেলপমেন্ট

অনেকেই ওয়েব ডিজাইনিং এবং ওয়েব ডেভেলপমেন্ট  এর মধ্যে গুলিয়ে ফেলে। দুইটা দুই জিনিস।   ওয়েব ডিজাইনিং হচ্ছে ডিজাইনিং পার্ট। যা সাধারণত ফটোশপ বা যে কোন গ্রাফিক্স ডিজাইনিং টুল দিয়ে করা হয়।   ডিজাইনিং হয়ে যাওয়ার পর তা দেখে দেখে কোড করার পার্ট টুকু হচ্ছে ডেভেলপমেন্ট। এই তো, সিম্পল।   আপনি যদি ভালো ফটোশপ পারেন, ওয়েব ডিজাইনিং […]

Read More

ফোকাস

আমরা কিছু মানুষ কিছুই করি না। জীবন যে ভাবে চলছে সে ভাবেই সময় গুলো পার করে দেই। কেউ কেউ অনেক কিছু ভাবি। অনেক কিছু করার চিন্তা করি। অনেক আইডিয়া মাথায় আসে। কিন্তু কোনটা নিয়েই কাজ করা হয় না। আবার আমাদের মধ্যের কেউ কেউ সব কিছু করার চেষ্টা করি। সব কিছু চেষ্টা করতে গিয়ে কোনটাই করা […]

Read More

প্রোগ্রামার হিসেবে বেড়ে উঠা

প্রায় সবাই প্রথম এমন একটা প্রোগ্রাম লিখি যা কনসোলে Hello world! লেখাটি প্রিন্ট করে। কনসোলে কিছু প্রিন্ট করেই প্রোগ্রামিং এর শুরু। এরপর আমরা যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ ইত্যাদি কিভাবে করে, তার প্রোগ্রাম লিখি। কিন্তু সত্যিকারের প্রোগ্রামিং শুরু করি যখন লজিক্যাল কোড লিখি, যেমন if else ব্যবহার করে। if else ব্যবহার করে আমরা ছোট ছোট সমস্যা […]

Read More

কোড, প্রজেক্ট বা প্রয়োজনীয় তথ্য গুলো ক্লাউডে রাখি

কম্পিউটার ব্যবহার করলে কোন না কোন দিন ক্র্যাশ করবেই। হার্ড ডিস্ক থেকে একবার না একবার ডাটা সব উধাও হয়ে যাবেই যাবে। যদি না হয়, তাহলে বুঝতে হবে আপনি নিয়মিত কম্পিউটার ব্যবহার করেন না। হার্ডডিস্ক ক্র্যাশ করলে তো ডেটা গুলোও উধাও হয়ে যাবে। তাই যে সব ডেটা খুব দরকার, সেগুলো ক্লাউডে রাখা বুদ্ধিমানের কাজ। গুগল ড্রাইভ, […]

Read More

অভ্যাস এবং অনুশীলন

কিছু কিছু জিনিস পড়ে পড়ে শেখা যায় না। প্র্যাকটিস করতে হয়। সাঁতার কেউ বই পড়ে শিখতে পারবে না। সাইকেল বা গাড়ি চালানোও কেউ কোন দিন বই পড়ে শিখতে পারে নাই। প্রোগ্রামিং ও একই রকম। ভালো প্রোগ্রামার কিভাবে হওয়া যায়, ভালো কোড কিভাবে করতে হয় এসব শিখা যায় বই পড়ে। কিন্তু কম্পাইলারটা নিয়ে প্রোগ্রাম রান করে […]

Read More